ডেস্ক : বরফের নিচে আটকা বরফের নিচে আটকা পড়ার ১৮ ঘণ্টা এক কিশোরীকে জীবিত উদ্ধার করা হয়েছে। মঙ্গলবার পাকিস্তান অধ্যুষিত আজাদ কাশ্মিরের নিলম উপত্যকার বাকওয়ালী গ্রামের নিজ বাড়ির একটি কক্ষ থেকে সামিনা নামের ১২ বছর বয়সী ওই কিশোরীকে উদ্ধার করা হয়।

বার্তা সংস্থা রয়টার্স জানায়, সোমবার আজাদ কাশ্মিরে হওয়া তুষারধসের সময় ওই কিশোরী নিজের বাড়ির একটি কক্ষে আটকা পড়েন। পরে প্রায় ১৮ ঘণ্টা পর উদ্ধারকর্মীরা তাকে সেখান থেকে উদ্ধার করে। সেখান থেকে তাকে মুজাফফরাবাদের একটি হাসপাতালে নিয়ে যাওয়া হয়।

সামিনার মা শাহনাজ বিবি জানান, তুষারধসের সময় তিনি পরিবারের অন্যান্য সদস্যদের নিয়ে বাড়ির ভেতরে আগুন পোহাচ্ছিলেন। হঠাৎ তুষারধসে মুহূর্তের মধ্যে সবকিছু পাল্টে যায়। পরিবারের অন্য সবাই বাড়ি থেকে বের হয়ে আসতে পারলেও সামিনা একটি কক্ষে আটকা পড়ে।

তিনি আরো জানান, অনেক সময় পেরিয়ে যাওয়ায় তারা সামিনার বেঁচে থাকার আশা প্রায় ছেড়েই দিয়েছিলেন। কিন্তু তার মেয়ে খুবই ভাগ্যবান। দীর্ঘ সময় পরেও সে বেঁচে ছিল। তবে তার একটি পা ভেঙ্গে গেছে এবং উদ্ধারের সময় তার মুখ দিয়ে রক্ষক্ষরণ হচ্ছিল।

প্রসঙ্গত, সম্প্রতি হওয়া তুষারধসে ভারত নিয়ন্ত্রিত জম্মু কাশ্মির, পাকিস্তান অধ্যুষিত আজাদ কাশ্মির এবং আফগানিস্তানে অনেক মানুষের প্রাণহানির ঘটনা ঘটে। তবে সবচেয়ে বেশি ক্ষতিগ্রস্ত হয় আজাদ কাশ্মিরের নিলম উপত্যকা। সেখানে অন্তত ৭৪ জনের প্রাণহানি হয়েছে বলে জানিয়েছে দেশটির জাতীয় দুর্যোগ ব্যবস্থাপনা কর্তৃপক্ষ। আর পুরো পাকিস্তান জুড়ে মারা গেছে অন্তত ১০০ জন।