ডেস্ক : ৩৫-এ পা দিলেন লিওনেল মেসি। আজ ২৪ জুন তার জন্মদিন। আধুনিক ‘ফুটবলের জাদুকরের’ জন্মদিন। আর্জেন্টিনার রোজারিও শহরে ১৯৮৭ সালের এই দিনে জন্মগ্রহণ করেন এই ফুটবল তারকা।

লিওনেল মেসি রেকর্ড পাঁচবার ব্যালন ডি অর জয় করেন, যার মধ্যে চারটি জিতেছেন টানা চার বছরে। পাশাপাশি রেকর্ড পাঁচবার ইউরোপীয় ‘গোল্ডেন শু’ জিতেছেন তিনি। মেসি আর্জেন্টিনা জাতীয় ফুটবল দল ও বার্সেলোনার অধিনায়কের দায়িত্ব পালন করছেন। অনেক ধারাভাষ্যকার, ফুটবল বিশেষজ্ঞ, কোচ এবং খেলোয়াড় মেসিকে বর্তমান সময়ের ‘অন্যতম সেরা ফুটবলার’ হিসেবে আখ্যায়িত করেন।

ফুটবল দুনিয়া কাঁপিয়ে ফেললেও মেসি তার দেশ আর্জেন্টিনাকে বড় কোনো ট্রফি এনে দিতে পারেননি। সেই আক্ষেপ আছে মেসির। তার ওপর ম্যারাডোনার মৃত্যু মেসিকে ভীষণ কষ্ট দিয়েছে। মেসির ফুটবল ক্যারিয়ারে ম্যারাডোনা ছিলেন প্রেরণা। মেসি যখন প্রথমবার জাতীয় দলের জার্সি গায়ে মাঠে নামেন সেই মাঠে ছিলেন ম্যারাডোনাও।

১৯৮৬ বিশ্বকাপ জয়ী ম্যারাডোনা সব সময় বিশ্বাস করতেন মেসি দেশকে আরেকটি ট্রফি এনে দেবেন। কিন্তু সেটা আজও হয়নি। ২০১৪ ব্রাজিল বিশ্বকাপ ফুটবলের ফাইনালে মারাকানায় জার্মানির কাছে হেরে যায় আর্জেন্টিনা। এরপর ২০১৫ এবং ২০১৬ সালে দুই বার কোপা আমেরিকার ফাইনালে উঠেও চিলির কাছে হেরেছে মেসির আর্জেন্টিনা। ফিফার দুই টুর্নামেন্টে টানা তিন বার ফাইনাল খেলেও জিততে না পারায় মেসি হতাশায় পড়েন। ২০১৬ সালে মেসি ফুটবল ছেড়ে দেওয়ার ঘোষণাও দেন। কিন্তু সবার চাপে আবার মাঠে ফেরেন। ২০১৮ রাশিয়া বিশ্বকাপে ট্রফি জয়ের অভিযানে নেমে শেষ ষোলতে ফ্রান্সের কাছে ৪-৩ গোলে হেরে বিদায় নেয় আর্জেন্টিনা।

১৪ বার কোপার ট্রফি জয় করা আর্জেন্টিনা মেসির নেতৃত্বে ট্রফি পায়নি। ১৯৯৩ সালে শেষবার ট্রফি জেতে আলবেলিস্তারা। এবারের কোপায় আর্জেন্টিনার যে পারফরম্যান্স, ভাগ্য খুব সহায় না হলে এবারো ট্রফি ঘরে তোলা তাদের জন্য কঠিন।

৩৫ বছর বয়সে কাতার ২০২২ বিশ্বকাপ খেলবেন মেসি। আর ২০২৬ বিশ্বকাপে তার বয়স হবে ৩৯। ওই বয়সে মেসি আন্তর্জাতিক ফুটবলে থাকবেন কি-না বা থাকলেও কেমন খেলবেন তা সময়ই বলে দিবে।